Ultimate magazine theme for WordPress.

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ৭৪ তম জন্মদিন উপলক্ষে সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক আয়োজিত মাসব্যাপী রক্তদান কর্মসূচি সহ বিভিন্ন কার্যক্রম

0

রত্নগর্ভা, মমতাময়ী, ১৬ কোটি মানুষের অভিভাবক, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ৭৪ তম জন্মদিন উপলক্ষে সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক আয়োজিত মাসব্যাপী জননেত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য, আগামী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমাদের জনো নেত্রীঅক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তিনি যেন সুস্থ এবং সাবলীল ভাবে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ এর বাকি অংশ যেন জাতিকে উপহার দিতে পারেন তাই তার স্বাস্থ্য এবং সুস্থতা বিষয় বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম হিসাবে সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ মাসব্যাপী বিভিন্ন সামাজিক কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়। রক্তদান কর্মসূচি, রক্ত গ্রুপিং টেস্ট, ফ্রি মেডিকেল চেকআপ,করোনা ও ডেঙ্গু বিষয়ক গণসচেতনতামূলক ব্যাপক প্রচার প্রচারণা ও মানুষের মাঝে মাক্স বিতরণ ও বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় জননীতির শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও সুস্থতার বিষয়ে দোয়া মাহফিল ও খাদ্যদ্রব্য বিতরণ কার্যক্রম চলমান। তারই ধারাবাহিকতায় ১৫/১০/২০২০অদ্য পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী প্রতি বৃহস্পতিবার রাতে পথশিশুদের খাদ্যদ্রব্য বিতরণ করা হয়। পাশাপাশি আগামী বাংলাদেশের উন্নয়নের বাধা কারিও ষড়যন্ত্রকারী একটি মহল এই সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য মরিয়া। তাই তাদেরকে রুখে দেওয়ার জন্য সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে প্রতিকী ধিক্কার প্রদান করে। এবং সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ আগামীতে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ ও দুর্নীতি মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে যে কোন দুর্যোগ যে কোনো অপশক্তি ,যে কোন ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করার জন্য প্রস্তত। সেই লক্ষ্য নিয়ে সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ সারা বিশ্বব্যাপী দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলছে। আমাদের জননেত্রী সম্মানে প্রত্যেকটা জেলা হতে, সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদের যে সকল কমিটি বাংলাদেশ এবং বিদেশে আছে সকলে মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে আগামীর স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রতিবন্ধকতা কারিও ষড়যন্ত্রকারীদের কে রুখে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হল। ইনশাল্লাহ আমাদের জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্রের রূপান্তরিত হবে। সেই আশা, মনবাসনা, ও স্বপ্ন লাখো তরুণের বুকে। সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ একটি সামাজিক সংগঠন হিসেবে সারা বছরই আমাদের এই সেবামূলক খাদ্য বিতরণ, অসামাজিক কার্যক্রম চলমান থাকবে। দেশ গড়ার বিষয়ে তরুণ সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে এবং জনো নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য সকলকে প্রস্তুত হতে হবে। প্রত্যেক জেলাকে এবং যে সকল স্থানে সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ এর কমিটি আছে সকলকেই মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে অপশক্তিকে রুখে দেওয়ার পূর্বাভাস প্রদান করতে হবে। আমরা জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ছাড়া বিকল্প কিছু ভাবিনা, হতেও দিব না। গত ১১বছরে দেশে যে উন্নয়ন হয়েছে যা সাধারণ মানুষ স্বপ্নেও ভাবতে পারে না। আজ পদ্মা সেতুর মতো স্বপ্ন ৯০%, কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আজ জাতি ডিজিটালাইজেশনে পা দিয়েছে। বাংলাদেশের ১৬কোটি মানুষই আজ নাগরিক সেবা পাচ্ছে। জনো নেত্রী শেখ হাসিনার কল্যাণময় সিদ্ধান্তে বিশ্বব্যাপী বৈরীভাব এর মাঝেও বাংলাদেশ যথেষ্ট ভাল অবস্থানে আছে এবং উন্নয়নের অগ্রযাত্রা ব্যাহত হয় নাই।

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু,
সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ চিরজীবী হোক।

সারা দেশব্যাপী সকল কমিটিকে মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে জননেত্রীর সম্মানে, জাতির কল্যাণে ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে গণ জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য অপশক্তিকে রুখে দেওয়ার প্রত্যয় নিয়ে সকলকে কর্মসূচি বাস্তবায়ন এবং সফল করার বিষয়ে অনুরোধ করা হইল।

নির্দেশক্রমে
লায়ন মতিউর রহমান টিপু
চেয়ারম্যান
সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ
কেন্দ্রীয় কমিটি

Leave A Reply

Your email address will not be published.